ধর্ষণের দিকে আঙুল ওঠায়, ঘ্যাঁচ করে নিজের পুরুষাঙ্গটাই কেটে ফেললেন ‘সাধু’!

261061_112

মাথিন ডেস্ক:::::::: চরিত্রের দিকে আঙুল ওঠায়, ঘ্যাঁচ করে নিজের পুরুষাঙ্গটাই কেটে ফেললেন ‘সাধু’! না থাকবে বাঁশ, না বাজবে বাঁশি। পুরুষাঙ্গকে ‘শাস্তি’ দিতে গিয়ে, নিজের জীবনকেই তিনি বিপন্ন করে তুলেছেন। যুঝছেন মৃত্যুর সঙ্গে।

ভারতের রাজস্থানের চুরু জেলার বছর বত্রিশের ওই সাধুর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, এক মহিলার সঙ্গে তিনি বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়েছেন। এই সম্পর্ক নিয়ে আশ্রমে কানাঘুঁষো শুরু হওয়ায়, বিব্রতই ছিলেন তিনি। ‘সাধু’জীবনের কলঙ্ক মুছতে ধারালো ছুরিতে এদিন সকালে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেন। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে তারানগরের আশ্রম থেকে উদ্ধার করে, স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে পাঠানো হয়েছে বিকানেরে।

পুলিশ জানিয়েছে, রাজস্থানের স্বঘোষিত ওই সাধুর নাম সন্তোষ দাস। তারানগরে তার আশ্রম রয়েছে। মঙ্গলবার সকালে তিনি নিজেই এই কাণ্ড করে বসেন।

কী কারণে এই সাধু এমন একটা কাণ্ড করে বসলেন, তা নিয়ে ধন্দে আছে পুলিশ। পুলিশের বক্তব্য, সন্তোষ দাস এখন কথা বলার মতো অবস্থায় নেই। ফলে, তার বয়ান রেকর্ড করা যায়নি। ফলে, সঠিক কারণ এখনই বলা সম্ভব নয়। তবে, আশ্রমের চারপাশের মানুষজন দাবি করেছেন, মহিলার সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই এই পরিণতি। বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষ। এক্ষুনি কিছু বলা যাবে না।

এর আগে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে এখন ২০ বছরের সাজা ভোগ করছেন ধর্মগুরু ডেরা সাচা সৌদার প্রধান গুরমিত রাম রহিম সিং।

ভক্তের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন সিয়া রাম দাস নামে আরেক ‘ধর্মগুরু’।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*