ভারতকে লজ্জায় ডোবালো ইয়ং টাইগাররা

অনুর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। ভারতকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে তারা। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান পিনাক ঘোষের বিধংসী ব্যাটিংয়ে লজ্জায় ডুবেছে ভারত।

এর ফলে তিন ম্যাচের তিনটিতে জয় পেয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ-পর্বের শীর্ষে আছে বাংলাদেশ। ফলে সেমিফাইলে পৌঁছেছে বাংলাদেশ।

অপরদিকে আজকের ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে ভারত।

৭৭ বলে ৬ বাউন্ডারি ও তিন ছক্কায় সর্বোচ্চ ৮১ রান করেছেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান পিনাক ঘোষ। তার সঙ্গী তৌহিদ হৃদয় করেছেন ৪৮ রান।

পিনাকের তাণ্ডব
চার-ছক্কার ঝড় তুলছেন ইয়ং টাইগার পিনাক ঘোষ। ইতোমধ্যে অর্ধশত করে ফেলেছেন এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। তিন ছক্কা ও পাঁচ বাউন্ডারিতে তার সংগ্রহ এখন ৬৮ রান। তার সাথে আছেন তৌহিদ হৃদয়। সাইফ হাসানের আউটের পর ক্রিজে এসেছেন তিনি।

উদ্বোধনী জুটিতে ইয়ংরা ৮২ রান করে। ব্যাক্তিগত ৪৪ বলে ৩৮ রান করে ফিরে যান নাঈম শেখ। ১০৮ রানের মাথায় ফিরে যান সাইফ হাসান।

ভারতের মানদীপ সিং ২ উইকেট নেন। ৫ ওভার বল করে দেন ৩৬ রান।

বৃষ্টির কারণে ওভার কার্টিল হয়ে ৩২ ওভারে ১৮৭ রান সংগ্রহ করে ভারত অনুর্ধ্ব-১৯। উইকেট হারায় আটটি।

গ্রুপ পর্বের ৪পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ইয়ং টাইগার। দুই পয়েন্ট নিয়ে তিন নাম্বারে আছে ভারত।
ইয়ং টাইগারদের ১৮৮ রানের চ্যালেঞ্জ দিলো ভারত

শুরুটা ভালোই করেছিল ইয়ং টাইগাররা। রবিউলদের একের পর এক আঘাতে ১৫ ওভারে ৪ উইকেট হারায় ভারত। এরপরও রানের চাকা সচল ছিল তাদের। ফলে বৃষ্টির কারণে ওভার কাটা গেলেও ভালো সংগ্রহ দাঁড় করায় তারা। ৩২ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ১৮৭ রান।

বিরতির পর ব্যাট করতে নেমেছে বাংলাদেশ। ক্রিজে আছেন পিনাক ঘোষ ও নাঈম শেখ।

টাইগারদের একের পর এক আঘাত

ভারত ও বাংলাদেশের যুবাদের মধ্যকার ম্যাচটি সকালে বৃষ্টির কারণে কয়েক ঘণ্টা বন্ধ থাকায় ওভার কাটা হয়েছে। তবে ভারতের অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। শুরুতে উইকেট হারানোর ধারানোর ধারাবাহিকতা এখনো রয়েছে। বৃষ্টির পর শুরু হওয়া ম্যাচে আরো দুই উইকেট হারিয়েছে ভারত।

নবম ওভারের শুরুতেই নাঈম হাসানের বলে সাজঘরে ফেরেন হিমাংশু রানা। তার সংগ্রহ ছিল ১৫ রান।

এরপর ১২.৪ ওভারে রবিউল হকের বলে ব্যক্তিগত ১৯ রানে সাজঘরে ফিরেন রায়ান পরাগ।

দুই ওভার পরে আবারো রবিউলের আঘাত। ৩৪ রানে তার শিকার হন অনুজ রাওয়াত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*